এক নজরে খাগড়াছড়ি ভ্রমনের কিছু কথা

এক নজরে খাগড়াছড়ি ভ্রমনের কিছু কথা

ভ্রমণ গাইড

ভূমিকাঃ১৯৮৩ সনের ৭ই নভেম্বর খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা গঠিত হয়। ২২.৩৮ডিগ্রী হতে ২৩.৪৪ডিগ্রী উত্তর অক্ষাংশ ও ৯১.৪২ ডিগ্রী হতে ৯২.১১ ডিগ্রী পূর্ব দ্রাঘিমাংশে এর অবস্থান। পাহাড়, ছোট ছোট নদী, ছড়া ও সমতল ভূমি মিলে এটি একটি অপরূপ সৌন্দর্য্যমন্ডিত ঢেউ খেলানো এলাকা। চেঙ্গী, মাইনী ও ফেণী প্রভৃতি এ জেলার উল্লেখযোগ্য নদী। এ ছাড়াও এতে রয়েছে ৩৩৬৮টি পুকুর, জলাশয় ও দীঘি যার ৬৭% খাস। জেলার উত্তর ও পশ্চিমে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্য, দক্ষিণে চট্টগ্রাম ও রাঙ্গামাটি জেলা এবং পূর্বে রাঙ্গামাটি জেলা অবস্থিত। মোট আয়তন ২৬৯৯.৫৫ বর্গ কিলোমিটার। উঁচু ভূমির পরিমাণ ৮৫% প্রায় এবং সমতল ভূমির পরিমাণ ১৫% (প্রায়)। জেলায় মোট ১২১টি মৌজার রয়েছে যার মধ্যে ৮৮টি মং সার্কেল ও ৩৩টি চাকমা সার্কেলের অন্তর্ভূক্ত। মং সার্কেলের আওতাধীন এলাকাগুলো হচ্ছে খাগড়াছড়ি সদর, মাটিরাঙ্গা, রামগড়, মানিকছড়ি, মহালছড়ি, পানছড়ি ও লক্ষ্মীছড়ি উপজেলার আংশিক এবং চাকমা সার্কেলের অধীনে লক্ষ্মীছড়ি উপজেলার আংশিক ও দীঘিনালা উপজেলা। গ্রামের সংখ্যা ৩৫৩, ইউনিয়ন-৩৫টি, উপজেলা-০৮টি, থানা-০৯টি, পৌরসভা-০৩টি।

প্রতিষ্ঠাকালঃ ১৮৬০ সালের ২০ জুন রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবান- এই তিন পার্বত্য অঞ্চলকে নিয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলা সৃষ্টি হয়। জেলা সৃষ্টির পূর্বে এর নাম ছিল কার্পাস মহল। পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলা থেকে ১৯৮১ সালে বান্দরবান এবং ১৯৮৩ সালে খাগড়াছড়ি পৃথক জেলা সৃষ্টি করা হয়।

নামকরণঃ খাগড়াছড়ি একটি নদীর নাম। নদীর পাড়ে খাগড়া বন থাকায় পরবর্তী কালে তা পরিষ্কার করে জনবসতি গড়ে উঠে, ফলে তখন থেকেই এটি খাগড়াছড়ি নামে পরিচিতি লাভ করে।

মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচিহ্নঃ
  • গণকবর: ১টি
  • স্মৃতিফলক: ১টি
  • স্মৃতিস্তম্ভ ২টি

যোগাযোগ ব্যবস্থাঃ খাগড়াছড়ি জেলায় যোগাযোগের প্রধান সড়ক চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি মহাসড়ক। সব ধরনের যানবাহনে যোগাযোগ করা যায়। এছাড়া ঢাকা থেকে মীরসরাই-রামগড় সড়ক হয়ে সরাসরি খাগড়াছড়ি যাওয়া যায়।

দর্শনীয় স্থান

  • আলুটিলা
  • আলুটিলা গুহা
  • কমলক ঝর্ণা
  • কেন্দ্রীয় শাহী জামে মসজিদ, খাগড়াছড়ি
  • খাগড়াছড়ি গেইট
  • খাগড়াছড়ি সেনানিবাস
  • খাগড়াছড়ি স্টেডিয়াম
  • গুইমারা
  • জেলা পরিষদ হর্টিকালচার পার্ক (ঝুলন্ত ব্রীজ)
  • তৈদুছড়া ঝর্ণা
  • দীঘিনালা ঝুলন্ত ব্রীজ
  • দীঘিনালা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়
  • দীঘিনালা সেনানিবাস
  • দেবতার পুকুর
  • পানছড়ি রাবার ড্যাম
  • পুরাতন চা বাগান
  • বিডিআর স্মৃতিসৌধ, রামগড়
  • বৌদ্ধ মন্দির
  • মং রাজবাড়ি
  • মাটিরাঙ্গা জলপাহাড়
  • মায়াবিনী লেক, ভাইবোনছড়া
  • রামগড় জঙ্গল
  • রামগড় পাহাড় ও টিলা
  • রিছাং ঝর্ণা
  • লক্ষ্মীছড়ি জলপ্রপাত
  • শতবর্ষী বটগাছ, মাটিরাঙ্গা
  • শান্তিপুর অরণ্য কুঠির
  • সিন্ধুকছড়ি পুকুর
  • স্বার্থক
  • হাতিমাথা পাহাড়: পাহাড়িরা একে এ্যাডোশিরা মোন বলে। এ্যাডো শব্দের মানে হাতি আর শিরা মানে মাথা।

তথ্যসূত্র: উইকিপিডিয়া ও বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন

প্লিজ শেয়ার করুণ..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *